ফেব্রুয়ারী ২৫th, ২০১৭ by দীপ্তরূপ সাম্যদর্শী

দুরকমের দেশপ্রেম হয়।
এক, ইমোশনবাজারী দেশপ্রেম।
“নমো নমো নমো সুন্দরী মম আম্মি জন্মভুমি,
গঙ্গার তীর, স্নিগ্ধ সমীর ক‍্যাল খেয়ে থাকি আমি”…
এসব লিখলে ভক্ত পাওয়া যায়। কারণ ম‍্যাক্সিমাম পাবলিক মেরুদন্ডবিক্রিত সুবিধাবাদী আঁতেল। ফলে তারা হুলিয়ে এর খরিদ্দার হয়ে থাকে। wink emoticon
আরেকরকম দেশপ্রেম হয়।
“আমরা তোমার হিংস্রমতো গুন্ডাছেলে,
বিপদ এলে ডাক দিও মা, থাকব জানি,
তুমি চাপ নিও না,
আমরাআআআ
দরকারে মরতে জানি।”
এটাকে জাতীয়তাবাদী দেশপ্রেম বলে। এটাতে বাজারী করা একটু চাপ। কারন বাজারে প্রফিট ওঠার আগেই মরে যাবার চান্স থাকে, “কুইসলিং” বা “তোজোর কুকুর” হবার চান্স থাকে….. ফলে বুদ্ধিজীবদের কাছে জাতীয়তাবাদ ঘৃণিত। মরে গেলে তাদের প্রফিট কে দেবে? ট‍্যাগরা বলকে কটা লোক চেনে??
তাই “নন্দ বলিল দেশের জন‍্য জীবনটা যদি দিই,
নাহয় দিলাম, কিন্ত তাহলে আমার প্রফিট কি?”
…..
অত‌এব, “সকলে বলিল, ভ‍্যালারে প্রেমিক, বাইচ‍্যা থাউক সিরোখাল”..
.
#কিনজোলাব_ধান্দাবাদ

Posted in Uncategorised Tagged with: , ,