ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত সমর্থন করি

কি বলবেন একে…?
মায়ের কাছে মাসির গল্প … ? না, কামারের কাছে ছুঁচ বেচতে যাওয়া ….??

কোন এক বাজারী পত্রিকার রিপোর্ট পড়ে দেখলাম গুগুলের সিইও শ্রী সুন্দর পিচাই এবং ফেসবুকের মালিক … শ্রী মার্ক জুকেরবার্গ … আপনারা দুজনেই নাকি মার্কিন প্রেসিডেন্ট শ্রী ডোনাল্ড ট্র্যাম্প প্রবর্তিত সাম্প্রতিক মুসলিম বিদ্বেষী আমেরিকান অবিভাসন নীতির তীব্র বিরোধিতা করেছেন। আপনাদের বক্তব্য, … এতে আমেরিকার ব্যবসার ক্ষতি হবে। অর্থনীতির উপর ক্ষতিকর প্রভাব পড়বে ইত্যাদি … ইত্যাদি …।।

আপনাদের আর কি? … বলেই খালাস। দুটো হাততালি আর পয়সার লোভে আপনারা যা খুশি তাই বলতেই পারেন। কিন্তু যাদের ভোটে নির্বাচিত হয়ে শ্রী ডোনাল্ড ট্র্যাম্প আজকে এই জায়গায় এসেছেন, তাদের মতামতের গুরুত্বের দিকটা তাঁকে যেমন ভাবতে হয়েছে, … তেমনই অপর দিকে প্রতিটি আমেরিকাবাসীর জান-মাল-নারীর সম্মানের গুরুভারও তাঁকেই বহন করতে হবে আগামী চার বছর। তার জবাবও দিতে হবে তাঁকেই।

শ্রী ট্র্যাম্প … কোরান-হাদীস জানেন। ইসলাম’কে বোঝেন। সত্যকে ভালোবাসেন। তাকে প্রতিষ্ঠা করতে চান। তাই তিনি অবলীলায় সন্ত্রাসবাদের ধর্ম যে আছে, … তা যে সত্যিই হয়, – তা সুস্পষ্ট করে দিয়েছেন। সন্ত্রাসবাদের ধর্ম কে চিহ্নিত করতে পেরে যে ভাবে রাশিয়া কিংবা জাপান … এবং ইজরায়েল আজ সন্ত্রাস মুক্ত, … তেমনই সেই পথে হেঁটেই তিনি এই পৃথিবীতে এক নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে চাইছেন। – এটা বুঝি খারাপ?… বুঝি অন্যায়??

তা, সেই খারাপে বা অন্যায়ে আপনাদের কাজ কি? আপনারা বিষ্ঠা খাচ্ছেন, খেয়ে ভালো আছেন – তা খান না কেন? তাই বলে ট্র্যাম্প সাহেবকেও আপনাদের মত দুর্গন্ধযুক্ত বর্জ্য সেবন করতে হবে নাকি? .. কি আপদ !!

এনি ওয়ে, ফর ইয়োর কাইন্ড ইনফরমেশন স্যার, … শ্রী ট্র্যাম্প একজন সফল ব্যবসায়ী। আর দশজন রাজনীতিবীদের মত নন। বাস্তবের কাছাকাছি থাকার মানুষ তিনি। … বিশিষ্ট ধনকুবেরও বটে। আপনাদের থেকেও অভিজ্ঞতাতেও প্রবীণ। … তাঁর পয়সাকড়িও যে আপনাদের থেকে খুব একটা কম আছে বলে মনে হয় না। অতয়েব স্বাভাবিক ভাবেই, লাভ ক্ষতির অঙ্কটা যে তিনি আপনাদের থেকে নেহাত কম বোঝেন, তা মনে হবার কোন কারন আছে কি?

তাই এটাই কি সব চেয়ে ভালো হয় না – যে, আপনারা আপনাদের এই অবাঞ্ছিত জ্ঞানবিতরণ ক্ষণিক বন্ধ রাখেন। মনে রাখবেন, … দেশটা আমেরিকা। ভারতের মত ন্যাকাষষ্ঠী নয়, যে নিজের ক্ষতি করে অপরের ইচ্ছাপুরন করতে যাবে। দেশটার জন্মই হয়েছে আব্রাহাম লিংকনের মত প্রখ্যাত রাষ্ট্রনায়কের হাত ধরে সিভিল ওয়্যারের মাধ্যমে রক্ত ঝরিয়ে, – যেখানে আপনাদের এইসব ফুটো মানবিকতার তত্ত্ব অচল।

কই? আইসিসের সহি মুসলমানেরা যখন তাদের তান্ডবে পৃথিবীর মানুষের বুকের রক্ত হীমায়িত করে ফেলে। বাংলাদেশ – পাকিস্তানের সাহাবী মুসলমানেদের হাতে নির্মম ভাবে নির্যাতিত হওয়া হিন্দুদের আর্তনাদ আর চোখের জলে যখন হিমালয়েরও পাষান হৃদয় গলে জল হয়ে যায়, – তখন আপনাদের এই সব পাণ্ডিত্যের তত্ত্ব কোথায় থাকে মশাই?

তাই বলি, ওহে … এখানে আপনাদের এই সব মেকী মানবপ্রেমের পসার আর জমবে না। পারলে অন্য মার্কেটে যান। বরং সরকারী সিদ্ধান্তের সমালোচনা করার বেয়াদপিতে আপনাদেরই না এবার ও দেশ থেকে ঘাড় ধাক্কা খেতে হয়..! তখন আমও যাবে …. আর ছালাও ..।।

– একবার ভেবে দেখবেন প্লিজ …।।

ফেব্রুয়ারী ২nd, ২০১৭ by